নোয়াখালীতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টারমাইন্ড তারেক জিয়ার বিচার দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিনিধি : নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টার মাইন্ড তারেক জিয়া ও এর নেপথ্যের পরিকল্পনাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। আজ শনিবার সকাল ১১টায় জেলা শহর মাইজদীর আবদুল মালেক উকিল প্রধান সড়কে অনুষ্ঠিত ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচিটি শহরের পৌর বাজার এলাকা থেকে পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত প্রায় পাঁচ সহস্রাধিক আওয়ামী লীগ, তাদের সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত।
মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতির বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন। এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড ইউনিটের কমান্ডার মো. কামাল উদ্দিন, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি নোয়াখালী জেলা শাখার সভাপতি আবুল কাশেম, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আইনবিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট হুমায়ুন কবির হিরো, সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট জামান উদ্দিন ভূঁইয়া, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আলমাস খান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাকিউল ইসলাম দুলাল ও ইন্দ্র ভূষণ সেন কান্তি।
সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন বলেন, একাত্তর এবং পঁচাত্তরের খুনিচক্র আর আজকের বাংলাদেশের যারা উন্নয়ন চায় না, তারা হাওয়া ভবন থেকে তারেক জিয়ার নেতৃত্বে আব্দুস সালাম পিন্টু, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ পরিকল্পনা করে গ্রেনেড হামলার মতো নারকীয় ঘটনা ঘটিয়েছে। ওই হামলায় যুক্ত করা হয়েছে আধুনিক গ্রেনেড, যেটা সামরিক বাহিনীর কাছে থাকে। পাকিস্তানসহ বিভিন্ন দেশ থেকে ওই গ্রেনেড ইম্পোর্ট করে আমাদের প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে প্রাণে হত্যা করার জন্য ২০০৪ সালের ২১ আগস্টের ওই নারকীয় কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। সেদিন আল্লাহর ইচ্ছায় তিনি বেঁচে গেলেও তার প্রধান দেহরক্ষী মাহবুব গ্রেনেড হামলায় শহীদ হন। আহত হন শত শত নেতাকর্মী। পরবর্তীতে আহতদের মধ্যে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভী রহমানসহ অনেকেই শহীদ হয়েছেন।
গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শিহাব উদ্দিন শাহীন বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টার মাইন্ড তারেক জিয়াসহ সকল নেপথ্যের পরিকল্পনাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার আজ সময় এসেছে। আমরা চাই বাংলাদেশের প্রচলিত আইনে তারেক জিয়া-খালেদা জিয়ার উত্তরসূরীরা যে নারকীয় ঘটনা ঘটিয়েছে, তাদের সর্বোচ্চ সাজা অর্থাৎ মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হোক।
গত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে তালা দিয়ে যারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষকে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে তাদেরও বিচার দাবি করেন শাহীন।
এর আগে সকাল থেকে জেলা সদরের বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে প্রতিবাদ মিছিল নিয়ে শহরের প্রধান সড়কে অবস্থান নেয় নেতাকর্মীরা।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

    রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০