সোনাইমুড়ীতে সৎ মায়ের বিরুদ্ধে শিশু হত্যার অভিযোগ

সোনাইমুড়ী প্রতিনিধি : নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী উপজেলার আমিশাপাড়া ইউনিয়নে বালিশ চাপা দিয়ে শিশু আব্দুল্লাহ আল নাফিজকে (৮) হত্যার অভিযোগে উঠে তার সৎ মায়ের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গতকাল রবিবার শিশুটির পিতা ওমর ফারুক বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশু নাফিজের লাশ উদ্ধার করে এবং সৎ মা নূপুরকে (২২) আটক করে।
নিহত আব্দুল্লাহ আল নাফিজের মা নুর নাহার জানান, ২০১৩ সালে উপজেলার আমিশাপাড়া ইউনিয়নের পদিপাড়া গ্রামের জাফর মিয়ার ছেলে ওমর ফারুকের সাথে তার বিয়ে হয়। কিন্তু স্বামী ওমর ফরুক পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে একই গ্রামের নূপুর নামে আরেকটি মেয়েকে বিয়ে করে। এরপর ফারুক ২০১৯ সালে নুর নাহারকে তালাক দেয়। এরপর শিশু নাফিজকে শানারবাগ একটি এতিমখানায় ভর্তি করা হলে ঈদের ছুটিতে এতিমখানা থেকে শিশুটি বাড়িতে আসে। তখন থেকেই তার সৎ মা তাকে নির্যাতন করতো।
গতি শনিবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে তার পিতার অনুপস্থিতিতে সৎ মা শিশুটিকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে কাঁথা দিয়ে লাশ মুড়িয়ে খাটের উপর শুইয়ে রাখে। পরে তার পিতা বাড়িতে এসে তার সন্তানকে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে তার সৎ মাকে অন্যের ঘর থেকে ডেকে আনে এবং এক পর্যায়ে শিশুটিকে খাটের উপর কাঁথা মুড়ানো অবস্থায় দেখতে পায়।
খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার ও সৎ মা নুপুরকে আটক করে। রবিবার সকালে শিশুটির পিতার ওমর ফারুক হত্যার অভিযোগে সোনাইমুড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জিসান আহমেদ জানান, প্রাথমিক সুরতাহালে শিশুটির নাকে আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে এবং মুখে টাইলস্ ক্লিনারের গন্ধ পাওয়া গেছে। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

    রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০